• শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:২২ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনামঃ
পিরোজপুর জেলা দাবা লীগের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত পিরোজপুর অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড মেইন রোড শাখা কর্তৃক “প্রবাসীর ঘরে ফেরা ঋণ বিতরণ” বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ভিত্তিক বই পড়া প্রতিযোগীতা এবং পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিশুদের মৌলিক শিক্ষার উদ্দেশ্যে ” শেখ রাসেল পাঠশালা “উদ্বোধন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন উপলক্ষে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশ গ্রহন সভা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত পিরোজপুর মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন এর আয়োজনে শতাধিক রোগীদের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প পিরোজপুরে শূন্য থেকে সফল উদ্যোক্তা এম এ মুন্না

পিরোজপুরে ৯ম দিনে লকডাউন চললেও মানছে না শহরের ও গ্রামের বাজারে কেউ: ২৪ ঘন্টায় একজনের মৃত্যু, ৫৯ জন ভর্তি

admin / ৭২ জন দেখেছেন
প্রকাশের সময়ঃ শুক্রবার, ৯ জুলাই, ২০২১

৯ম দিনের লকডাউনে পিরোজপুর শহরের বাজার ও গ্রাম্য বাজারগুলোতে মানছে না লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে হাসান আলী নামে একজন মারা গেছে। এয়াড়াও জেলা হাসপাতালে ও বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্যকম্পেলেক্সে ৫৯ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় ১৩৮ জনকে করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে সদও উপজেলায় ৫৫ জন, ভান্ডারিয়ায় ১৪ জন, মঠবাড়িয়ায় ১৫ জন, নাজিরপুরে ০৩ জন, নেছারাবাদে ২৫ জন এবং কাউখালীতে ২২ জন, ইন্দুরকানী ০৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। জেলায় সংক্রমনের হার শতকরা ৪৫ শতাংশ।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের মতে, জেলাতে ১১ হাজার নমুনা পরিক্ষা করে ২ হাজার ৯০৩জনকে পজেটিভ পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে ১ হাজার ৭ শত ৬৫ জন সুস্থ্য হয়েছেন এবং ৪৪ জন মারা গেছে। জেলায় ১ হাজার ৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত রয়েছেন।

লকডাউনে জেলায় গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও জেলার বিভিন্ন উপজেলায় চলছে অটোরিক্সা। শহরের বাজার ও বিভিন্ন গ্রাম্য বাজার গুলোতে মানুষের উপচে পড়া ভীর রয়েছে। শ্রমিক, দীনমজুর ও কর্মহীন মানুষদের মধ্যে শুধু খাবারের হাহাকার। একটু ত্রানের আশায় সকলেই ছুটছে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে। এদিকে জেলায় করোনা সংক্রমনের সংখ্যা বাড়লেও জেলার বিভিন্ন উপজেলা গুলোতে মানুষের সচেতনতার অভাব রয়েছে। মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়ক গুলোতে কঠোর লকডাউন পালন করতে গিয়ে বাজারে নজরদারী হারাচ্ছে প্রশাসন এমনটাই অভিযোগ সাধারণ মানুষের। সদর উপজেলার বিভিন্ন বাজার মঠবাড়িয়া, ভান্ডারিয়া, নেছরাবাদ, কাউখালী, নাজিরপুর ও ইন্দুরকানী উপজেলার বিভিন্ন বাজারে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের ব্যাপক সমাগম রয়েছে অনেকেই মানছে না স্বাস্থ্যবিধি। প্রথমদিকে প্রশাসনের তৎপরতা অনেক বেশি থাকলেও ধীরে ধীরে যেনো তা গতি হারাচ্ছে এমনটাই মনে করছেন সুশিল সমাজের ব্যাক্তিবর্গ। তবে কঠোর লকডাউন পালনে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমান আদালতে ব্যাপক মামলা ও জরিমানা করা হচ্ছে বলে দাবী জেলা প্রশাসনের।

সিভিল সার্জন ডা: মো: হাসনাত ইফসুফ জাকী জানান, জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৩২৮ টি নমুনা পরিক্ষা করে ১৩৮ জনকে পজেটিভ পাওয়া গেছে। জেলা হাসপাতাল ও বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্যকম্পেলেক্সে ৫৮ জন রোগী ভর্তি আছে। সংক্রমনের হার শতকরা ৪৫ শতাংশ। জেলা হাসপাতালে রোগীদের কিছুটা চাপ রয়েছে তবে আমাদেও সেন্টাল অক্সিজেন সহ পর্যাপ্ত অক্সিজেনের ব্যবস্থা রয়েছে।

জেলা প্রশাসক আবু আলী মো: সাজ্জাদ হোসেন জানান, সকাল থেকেই জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, সেনাবাহিনী, বিজিবি, আনসার মাঠে থেকে যৌথ ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৪৯ টি মামলায় ২১ হাজার ৫৫০ টাকা ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সকল উপজেলায় কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া খাদ্য সহায়তা চলমান রয়েছে।

 


একই ধরনের আরও খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!