• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:১০ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনামঃ
রূপালী ব্যাংক লিমিটেড এর বঙ্গবন্ধু পরিষদ এর পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ পিরোজপুর সদর উপজেলার সাতটি ইউনিয়নে কর্মী সভা সম্পন্ন করেছে সদর উপজেলা ছাত্রদল পিরোজপুর জেলা দাবা লীগের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত পিরোজপুর অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড মেইন রোড শাখা কর্তৃক “প্রবাসীর ঘরে ফেরা ঋণ বিতরণ” বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ভিত্তিক বই পড়া প্রতিযোগীতা এবং পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিশুদের মৌলিক শিক্ষার উদ্দেশ্যে ” শেখ রাসেল পাঠশালা “উদ্বোধন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন উপলক্ষে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশ গ্রহন সভা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে ব্যবসায়ীকে নির্যাতনের মামলার ১৬ দিনেও গ্রেফতার হয়নি ইউপি চেয়ারম্যান

admin / ১৮৩ জন দেখেছেন
প্রকাশের সময়ঃ বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে আল আমীন নামে এক কাঠ ব্যবসায়ীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পরে ২নং পত্তাশী ইউনিয়নের চেয়াম্যান সহ ১১ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের ১৬ দিনেও গ্রেফতার হয়নি ইউপি চেয়াম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার ও তার ছেলে সানি হাওলাদার। অদৃশ্য ক্ষমতার বলে এখনো ধরা ছোয়ার বাইরে চেয়ারম্যান ও তার ছেলে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার আল আমীনের পিতা আলী আকবার বাদী হয়ে ইন্দুরকানী থানায় একটি মামলা দায়ের করলে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মজিদ ফকির ও সাধারণ সম্পাদক আলাম ফকিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ বলে জানান ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন এর নির্দেশে তার ছেলে সানি হাওলাদার সহ অন্যান্য অভিযুক্তরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে আল আমীনকে তুলে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে নির্যাতন করে। মামলার প্রধান দুই আসামীকে গেস্খফতার করা হলেও ধরা ছোয়ার বাইরে রয়ে গেছে ইউপি চেয়াম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার এবং তার ছেলে সানি হাওলাদারকে।

আল আমিননের বাবা আলী আকবার জানান, সম্পূর্ণ পরিকল্পিতভাবে ইউপি চেয়াম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদারের লোক মজিদ ও আলামসহ একদল যুবক মিথ্যা অভিযোগে গত (২৮ মার্চ) রাতে আল আমীনকে হাত পা বেধে নির্মমভাবে নির্যাতন করে। পুলিশ গিয়ে তার ছেলেকে উদ্ধার না করলে হয়তো তারা তাকে মেরেই ফেলতো। এমন শারিরিক ও মানসিক নির্যাতনের উপযুক্ত বিচাই করা হয়।

এ ঘটনায় ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, আল আমিননের বাবা আলী আকবার বাদী হয়ে হত্যার উদ্দিশ্যে মারধর করে পা ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগে ১১ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রধান দুইজন আসামীকে গ্রেফতার করেছে। বাকিদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, এক নারীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গত (২৮ মার্চ) রাতে আল আমীনকে হাত পা বেধে নির্মমভাবে নির্যাতন করে মজিদ ও আলামসহ একদল যুবক। এরপর ইন্দুরকানী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে আল আমীনকে উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে এক নারীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনেই একটি মামলায় গ্রেফতার করা হয় আল আমীনকে গেস্খফতার দেখানো হয়। ওই দিনই আহত ইউপি চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন ও তার ছেলে সানি হাওলাদার সহ ১১ জন কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে আল আমিনের বাবা।

 

 

 

 


একই ধরনের আরও খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!