• শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৮ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনামঃ
পিরোজপুর জেলা দাবা লীগের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত পিরোজপুর অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড মেইন রোড শাখা কর্তৃক “প্রবাসীর ঘরে ফেরা ঋণ বিতরণ” বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ভিত্তিক বই পড়া প্রতিযোগীতা এবং পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিশুদের মৌলিক শিক্ষার উদ্দেশ্যে ” শেখ রাসেল পাঠশালা “উদ্বোধন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন উপলক্ষে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশ গ্রহন সভা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত পিরোজপুর মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন এর আয়োজনে শতাধিক রোগীদের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প পিরোজপুরে শূন্য থেকে সফল উদ্যোক্তা এম এ মুন্না

পিরোজপুরে কালিগঙ্গা নদীতে ১১৮ কোটি টাকার সেতু নির্মানের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে

admin / ২২৭ জন দেখেছেন
প্রকাশের সময়ঃ মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট, ২০২০
পিরোজপুরে কালিগঙ্গা নদীতে ১১৮ কোটি টাকার সেতু নির্মানের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে

 

পিরোজপুরের কালিগঙ্গা নদীর উপর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের সেতু নির্মানের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে ইতিমধ্যেই সেতু নির্মানের কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছে এবং মূল সেতুর কাজ শুরু হয়েছে।

১১৮ কোটি টাকা বরাদ্দের ৬ শত মিটার দৈর্ঘ্য, ১০ মিটার প্রস্থের এ সেতুটির নির্মান কাজ এগিয়ে যাওয়ার খবর শুনে পিরোজপুর সদর, নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠী) সহ কয়েকটি উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুুষ আনন্দিত হয়েছে এবং তাদের দীর্ঘদিনের একটি দাবি পূরণ হতে যাচ্ছে।

২০২১-২২ অর্থ বছরে এ সেতুটির নির্মান কাজ শেষ করে যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মূক্ত করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পিরোজপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায়।

নেছারাবাদের সিনিয়র সাংবাদিক মো. নজরুল ইসলাম ও গুয়ারেখা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়্যারমান সুব্রত কুমার ঠাকুর জানান, এ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে এ সেতুটির নির্মান কাজ শেষ হলে। তারা আরও বলেন নেছারাবাদের ৮ ইউনিয়নের লাখো মানুষ সরাসরি সড়ক পথে জেলা সদরে যাতায়ত করতে পারবে। এ অঞ্চল থেকে জেলা সদরে যেতে বর্তমানে যেখানে ৪ থেকে ৫ ঘন্টা সময় লাগে। সেতুটি নির্মান হলে সর্বোচ্চ ১ ঘন্টার মধ্যে পিরোজপুরে পৌছানো সম্ভব হবে। ফলে অর্থ ও সময় সাশ্রয় হবে এবং মানুষের কষ্ট লাঘব হবে।

সেতুটির কারণে জেলার সবচেয়ে বড় ব্যবসায়ী এলাকা ইন্দুরহাট, মিয়ারহাট ও স্বরূপকাঠী উপজেলার বিভিন্ন কৃষি পণ্য, ফলফলাদি, নার্সারী, কাঠের তৈরী আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল অতি সহজেই জেলা শহর পিরোজপুর হয়ে বাগেরহাট-খুলনা-যশোরে পৌঁছে যাবে।

পিরোজপুরের এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায় আরো জানান, কলাখালীতে কালিগঙ্গা নদীর উপর সেতু নির্মাণের কাজ দ্রুততার সাথেই এগিয়ে চলছে। এ সেতু নির্মাণ কাজে কোন ধরনের গাফিলতি বরদাশ্ত করা হবে না।


একই ধরনের আরও খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!