• শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনামঃ
পিরোজপুর জেলা দাবা লীগের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত পিরোজপুর অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড মেইন রোড শাখা কর্তৃক “প্রবাসীর ঘরে ফেরা ঋণ বিতরণ” বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ভিত্তিক বই পড়া প্রতিযোগীতা এবং পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিশুদের মৌলিক শিক্ষার উদ্দেশ্যে ” শেখ রাসেল পাঠশালা “উদ্বোধন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন উপলক্ষে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশ গ্রহন সভা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত পিরোজপুর মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন এর আয়োজনে শতাধিক রোগীদের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প পিরোজপুরে শূন্য থেকে সফল উদ্যোক্তা এম এ মুন্না

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে চুরির অপবাদে চোখে মরিচের গুড়া দিয়ে কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগ

admin / ২০২ জন দেখেছেন
প্রকাশের সময়ঃ রবিবার, ২৬ জুলাই, ২০২০

ইন্দুরকানীতে চুরির অপবাদে চোখে মরিচের গুড়া দিয়ে কিশোরকে নির্যাতন করা হয়েছে । গত শুক্রবার রাতে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল পশ্চিম বালিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে । সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী জানায়, পশ্চিম বালিপাড়া গ্রামের মনোয়ার শেখের ছেলে মাসুম শেখ (১৪) কে টাকা চুরির মিথ্যা অপবাদে একই গ্রামের মহিলা ইউপি সদস্য মোসাঃ লাকি বেগম ও তার স্বামী আনোয়ার হোসেন, ফয়সালের দলবল নিয়ে রাতভর কিশোরকে নির্যাতন করেন । ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ওদের কাছ থেকে ছেলেকে উদ্ধার করেন তার মা। কারো কাছে বিচার দিলে জানে মেরে ফেলবে বলে জানান মা মনোয়ারা বেগম।
নির্যাতনের শিকার মাসুম শেখ বলেন , আমি অনেকদিন ধরে লাকি মেম্বারের বাড়ীতে দিনমজুর হিসেবে কাজ করি। শুক্রবার ফয়সাল আমাকে লাকি মেম্বারের বাড়ী থেকে ৩৮০পিচ ইয়াবা নিয়ে আসতে বলে। আমি ইয়াবা ফয়সালের কাছে এনে দিলে। বিক্রি করার পরে বাকি গুলো আমাকে আনোয়ারের দোকানের পিছনে রাখতে বললে আমি রেখে আসি। পরে সেখানে ওই ইয়াবা না পাওয়ার কারনে আমাকে তার বাড়ীতে নিয়ে ৫০হাজার টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে আমার চোখে মরিচের গুড়া দিয়ে শরিরের বিভিন্ন স্থানে রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আঘাত করেন।

অভিযুক্ত লাকি মেম্বার বলেন, একটি জমি রেজিষ্ট্রি বাবদ ৫০হাজার টাকা চুরি করায় জিজ্ঞাসাবাদ করা জন্য মাসুমকে বাড়ীতে ডেকে আনা হয় এবং টাকা উদ্ধারের জন্য বিভিন্ন ধরনে ভয়ভীতি দেওয়া হয় ।

একই এলাকার বালিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতি বলেন, ফয়সাল সহ তারা দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও জুয়ার ব্যবসার সাথে জড়িত । মাসুমকে তারা ৩৮০ পিচ ইয়াবা দোকানের পিছনে রাখতে দিয়েছে। সেই ইয়াবা হারিয়ে যাওয়ায় চুরি অপবাদ দিয়ে তার উপর নির্যাতন করা হয়েছে ।

ইন্দুরকানী থানার ওসি মোঃ হাবিবুর রহমান জানান,উপজেলার বালিপাড়া এলাকায় কিশোর নির্যাতনের শিকার বিষয়টি আমি শুনেছি । লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সহকারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


একই ধরনের আরও খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!