• শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনামঃ
পিরোজপুর জেলা দাবা লীগের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত পিরোজপুর অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড মেইন রোড শাখা কর্তৃক “প্রবাসীর ঘরে ফেরা ঋণ বিতরণ” বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ভিত্তিক বই পড়া প্রতিযোগীতা এবং পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিশুদের মৌলিক শিক্ষার উদ্দেশ্যে ” শেখ রাসেল পাঠশালা “উদ্বোধন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন উপলক্ষে সুশাসন প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে অংশীজনের অংশ গ্রহন সভা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত পিরোজপুরে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে শেখ রাসেল দিবস পালিত পিরোজপুর মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন এর আয়োজনে শতাধিক রোগীদের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প পিরোজপুরে শূন্য থেকে সফল উদ্যোক্তা এম এ মুন্না

শাহানারা আবদুল্লাহর মৃত্যুতে পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র হাবিবুর রহমান মালেকের শোক

admin / ৩৭৩ জন দেখেছেন
প্রকাশের সময়ঃ সোমবার, ৮ জুন, ২০২০

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহবায়ক, মন্ত্রী ও বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর স্ত্রী ও বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ এর মাতা শাহানারা আবদুল্লাহর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পিরোজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মো: হাবিবুর রহমান মালেক।

শাহানারা আবদুল্লাহ ছিলেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও একাধারে বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব। তিনি ছিলেন সবার কাছে সমান জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য। তিনি আরো জানান, শাহানারা আবদুল্লাহর মৃত্যুতে আমরা একজন কাণ্ডারিকে হারালাম। তাঁর এ অভাব কখনও পূরণ হওয়ার নয়। আমি তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। একইসঙ্গে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার রাত ১১টার দিকে ৭০ বছর বয়সী শাহানারা মৃত্যু হয়। জানাজা শেষে সোমবার দুপুরে তাকে বরিশাল মুসলিম গোরস্থানে দাফন করা হয়। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর স্ত্রীতিনি স্বামী, তিন ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। তাদের বড় ছেলে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট রাতে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বর রোডের বাড়িতে সপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কালরাতে মিন্টো রোডে বাড়িতেও যে হত্যাযজ্ঞ চলে তার সাক্ষী ছিলেন শাহানারা।

ওই রাতে তার সামনে গুলিতে নিহত হয় তার শিশুসন্তান সুকান্ত বাবু, শ্বশুর তৎকালীন মন্ত্রী আব্দুর রব সেরনিয়াবাতসহ অনেকে। সে সময় শাহানারা নিজেও গুলিবিদ্ধ হন।

 


একই ধরনের আরও খবর
error: Content is protected !!
error: Content is protected !!